Deshebideshe tv

মুসলিম হয়েও মন্দিরে গিয়ে পূজা, চরম বিতর্কে নুসরাত

মুসলিম হয়েও মন্দিরে গিয়ে পূজা, চরম বিতর্কে নুসরাত

কলকাতা, ১৪ মার্চ- বিতর্ক যেন পিছুই ছাড়ছে না নায়িকা নুসরাত জাহানের। সংসদ সদস্য হওয়ার পর বিতর্কের পরিমাণটা বেড়েছে আরও। কখনো লোকেরা নায়িকাকে খুঁচিয়ে বিতর্ক করেন, কখনো আবার নায়িকা নিজেই রসদ জোগান দিচ্ছেন।

সম্প্রতি ধর্ম নিয়েই বেশি বিদ্রুপ-কটাক্ষের শিকার হচ্ছেন নুসরাত। কিছুদিন আগে মুসলিম হয়েও মাথায় হিন্দু নারীদের মতো সিঁথি পরায় তাকে নিয়ে ঝড় উঠেছিলো নেট দুনিয়ায়। এবার তিনি নেটবাসীদের রোষানলে পড়লেন মন্দিরে পূজা দিতে গিয়ে।

সম্প্রতি নুসরাত জাহান স্বামী নিখিল জৈনকে নিয়ে পুজো দিলেন তারাপীঠ মন্দিরে। বীরভূমের রামপুরহাটে ১১ মার্চ নুসরাত একটি শপিং মলের উদ্বোধন করতে আসেন। সেখানে নুসরাতকে দেখতে ভিড় জেম যায়। সেলফি তুলতে গেলে নিরাপত্তারক্ষীরা উৎসাহীদের আটকে দেন। পরে নুসরাতই সাধারন মানুষের সাথে সেলফি তুলে পরিস্থিতি সামাল দেন।

রামপুরহাটে এসে নুসরাত জাহান জানান, ‘এখানে এসে আমার খুব ভালো লেগেছে। এখানকার মানুষের ভালোবাসা দেখে।’

তবে এর বাইরে আর কোনো প্রতিক্রিয়া দিতে চাননি তিনি। এদিকে তাকে মন্দিরে পূজা দিতে দেখে ক্ষেপেছেন মুসলিম সম্প্রদায়ের লোকেরা। তাদের প্রশ্ন, ‘নুসরাত আসলে কোন ধর্ম পালন করেন?’

বরাবরের মতো এবারেও এসব বিতর্ক নিয়ে চুপ করে আছেন নুসরাত। তার সঙ্গে এসব বিতর্ক নতুন তো কিছু নয়। সিঁথিতে সিঁদুর পরে যেদিন সংসদে প্রথম শপথ নিয়েছিলেন তৃণমূল সাংসদ নুসরত জাহান, সেদিনই তার উপর ফতোয়া জারি করেছিল মৌলবাদীরা। এরপর আবার স্বামী নিখিলের সঙ্গে রথের রশি টেনে বিতর্কের মধ্যে জড়িয়ে ছিলেন তিনি।

মহাষ্টমীর অঞ্জলি দেওয়া, কালী মন্দিরে গিয়ে পুজো দেওয়া ইত্যাদি প্রতিটি ক্ষেত্রেই বারংবার রোষানলে পড়তে হয়েছিল এই তৃণমূল সাংসদকে। পাশাপাশি কটাক্ষের শিকারও হতে হয়েছিল তাকে। তবে সেসবকে কোনোবারই তোয়াক্কা করেননি এই তৃণমূল সাংসদ। বারবার তিনি ধর্মনিরপেক্ষ ভারতের কথা বলেছেন।

আর/০৮:১৪/১৪ মার্চ